গর্ভাবস্থায় ঘর ঝাড় দেওয়া বা ঘর মোছার মত কাজ কি করা উচিৎ?

গর্ভাবস্থায় প্রতি পদে সাবধান থাকতে হয়, এই সময় যে কোনও ভুল পদক্ষেপ বা হঠকারিতাই মা বা গর্ভের শিশুর জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকারক হতে পারে। প্রেগন্যান্ট মায়েদের সামান্য ভুলেও তাঁর গর্ভের সন্তানের স্বাস্থ্যে বিপদজনক প্রভাব ফেলতে পারে। তাহলে সেই পরিপ্রেক্ষিতে গর্ভবতী মহিলাদের জন্য ঘর ঝাড় দেওয়া বা ঘর মোছার মত কাজ কতটা নিরাপদ? সে ব্যাপারে নিচে কিছু জরুরী কথা বলা রইল যা গর্ভবতী মহিলাদের অবশ্যই খেয়াল রাখা উচিৎ।

গর্ভাবস্থায় কি ঘর ঝাড় দেওয়া উচিৎ?

প্রেগনেন্সির সময় ঘর ঝাড় দেওয়ার কাজ আদৌ বিপদজনক নয় কারণ ঘর ঝাড় দেওয়ার মানে প্রেগন্যান্ট মহিলাদের রীতিমত অ্যাক্টিভ থাকা আর এ'তে তাঁদের উপকারই হবে। ঘর ঝাড় দেওয়ার কাজ শরীরের জন্য দিব্যি এক ধরণের কসরত আর এ'তে শারীরিক স্ফূর্তি বজায় থাকে। বিশেষ কিছু অবস্থায় অবশ্য ডাক্তাররা মহিলাদের ঝাড় দেওয়ার মত কাজ এড়িয়ে চলতে বলতে পারেন; বিশেষত প্রেগনেন্সির সময় কিছু অযাচিত জটিলতা দেখা দিলে। যে কোনও রকম অ্যাক্টিভিটি শুরু করার আগেই প্রেগন্যান্ট মহিলাদের উচিৎ ডাক্তারের পরামর্শ নেওয়া।

এর বাইরে আরও  কিছু ব্যাপারে প্রেগন্যান্ট মহিলাদের সতর্ক থাকা উচিৎ, সে'গুলো হল:

খুব বেশি এক্সারসাইজ করা

- এই সময় অতিরিক্ত এক্সারসাইজ বা খুব ভারী রকমের কোনও এক্সারসাইজ না করাই ভালো। তা'তে প্রেগন্যান্ট মা এবং তাঁর গর্ভের সন্তান; দু'জনেরই ক্ষতি হতে পারে।  ঘর ঝাড় দেওয়া বা ঘর মোছা আদৌ বিপদজনক নয়। তবে প্রেগন্যান্ট মহিলাদের ধুলোয় অ্যালার্জি থাকলে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে এ'সব কাজ করা উচিৎ।

- প্রেগন্যান্ট অবস্থায় ঘর মোছার সময় মহিলাদের একটা বিষয়ে অবশ্যই সাবধান হওয়া উচিৎ। কিছুতেই কেমিক্যাল যুক্ত কোনও পদার্থ দিয়ে ঘর মোছা উচিৎ নয়। জলে কিছু মেশাতে চাইলে লেবু, নিম বা নুন মিশিয়ে তা দিয়ে ঘর মুছতে পারেন। কারণ কেমিক্যালের গন্ধ আপনার গর্ভের শিশুর জন্য ক্ষতিকারক হতে পারে। এমন কোনও কিছুই ঘর মোছার সময় ব্যবহার করা উচিৎ নয় যার গন্ধ অত্যন্ত উগ্র। এই সময়ে উগ্র গন্ধে প্রেগন্যান্ট মহিলাদের বমি পেতেই পারে। 

- তাছাড়া এই সময় উঁচু জায়গায় কোনও কিছু ঝাড়পোঁছ করতে যাওয়া বা অত্যধিক ভারী  কিছু তুলতে যাওয়া একদমই উচিৎ নয়। এ'সব কাজ করতে গিয়ে সামান্য দুর্ঘটনা মানেই গর্ভপাতের মত দুর্ভাগ্যজনক কিছুও ঘটে যেতে পারে।  কাজেই এই সব ব্যাপারে যতটা সম্ভব সাবধানতা অবলম্বন উচিৎ।

- এই সময় প্রেগন্যান্ট মহিলাদের অ্যাক্টিভ থাকা অবশ্যই উচিৎ কিন্তু তাই বলে নিজের শরীরকে ক্লান্ত করে কিছু করা উচিৎ নয়; এ'তে বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিতে পারে। বিশেষত এমন পরিস্থিতিতে দেখা দিতে পারে রক্তস্রাব, ক্লান্তি, গা ব্যথা, বমিভাব, মাথা ঘোরা বা শরীরের তাপমাত্রায় আচমকা পরিবর্তনের মত উপসর্গ। এই ধরণের উপসর্গ যথেষ্ট চিন্তার কারণ হতে পারে এবং এমন কিছু হওয়ামাত্রই ডাক্তারের সঙ্গে যোগাযোগ করা উচিৎ।  

- এ ছাড়া গর্ভবতী মহিলাদের ঘর পরিষ্কার করার সময় একটা ব্যাপারে অবশ্যই সাবধান হওয়া উচিৎ; এই  সময় মহিলাদের এমন কিছু পরিষ্কার করা উচিৎ না যা থেকে কোনও রকম সংক্রমণ ছড়াতে পারে। যেমন বেড়াল, ইঁদুর বা কুকুরের পটি পরিষ্কার একদমই করা উচিৎ নয়। বিশেষত বেড়ালের পটি থেকে ট্যাক্সোপ্লাস্মোসিজের মত সংক্রমণ ছড়িতে পড়তে পারে। আর গর্ভাবস্থায় এই ধরণের সংক্রমণের শিকার হওয়া মানে গর্ভের সন্তানেরও ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা।

ফিচার ছবি  cafemomstatic.com থেকে সংগৃহীত।

 

Translated by Tanmay Mukherjee

loader