পিরিয়ডের সময় সেক্স করলে কী কী ঘটতে পারে? জেনে নিন।

পিরিয়ডের দিনগুলো কারুরই খুব একটা নিশ্চিন্তে কাটে না। শুধু প্রেগনেন্সির ভয় না থাকার ব্যাপারটা সামান্য হলেও স্বস্তিদায়ক। কিন্তু যে কোনও মহিলাকে জিজ্ঞেস করলেই জানতে পারবেন যে পিরিয়ডের দিনগুলো কতটা দুর্বিষহ হয়ে উঠতে পারে, বিশেষত সেই সময়ে যে প্রচণ্ড যন্ত্রণা ভোগ করতে হয় তা সহ্য করা কিছুতেই সহজ নয়। তবে পিরিয়ডের দিনগুলোতে বেশির ভাগ মহিলাই একটা ব্যাপার বেশ পছন্দ করেন কিন্তু সেই ব্যাপারে কথা বলতে বিশেষ সাহস পান না। সেক্স! আজ্ঞে হ্যাঁ, ব্যাপারটা একটু অপরিচ্ছন্ন আর অস্বস্তিকর শোনালেও, পিরিয়ড সেক্স কিন্তু বেশ আনন্দদায়ক হতে পারে।

আর আজকাল ডাক্তাররাও বলেন যে পিরিয়ডের সময় সেক্স নিরাপদ এবং ঝুঁকিহীন। এই প্রবন্ধে দেওয়া রইল ১০টা এমন কারণ যার ফলে পিরিয়ড সেক্স হয়ে ওঠে অত্যন্ত উপভোগ্য:

১। এই সময় সেক্স সেই ভয়াবহ পিরিয়ডের ব্যথা খানিকটা কমাতে সাহায্য করে। অর্গাজমের সময় নিঃসৃত হয় অক্সিটোসিন যা আপনার মন এবং শরীরকে করে তোলে প্রাণবন্ত যার ফলে আপনার ইউটেরাসের ব্যথা অনেকটা কমে আসে।

২। পিরিয়ড আর পিরিয়ডের রক্ত নিয়ে অনেকের মধ্যে বিভিন্ন রকমের কুসংস্কার বা ভিত্তিহীন দুশ্চিন্তা থাকে। পিরিয়ড-সেক্স আপনার এবং আপনার পার্টনারের সেই সব চিন্তাগুলোকে দূরে ঠেলতে সাহায্য করে।

৩। পিরিয়ডের সময় আপনার যৌন আকাঙ্ক্ষা এবং মিলনের ইচ্ছা বেশি থাকে এবং সে'টাই স্বাভাবিক। কাজেই এই সময় সেক্স করতে পারলে আপনি যে রীতিমত উপভোগ করবেন সে'টা বলাই বাহুল্য।

৪। আপনার পার্টনার যদি আপনার যোনিতে বীর্যপাত করেন তাহলে দুশ্চিন্তার কিছু নেই কারণ এই সময় আপনার প্রেগন্যান্ট হওয়ার সম্ভাবনা প্রায় নেই বললেই চলে।

৫। ব্যাপারটা কিন্তু আদৌ মারাত্মক ভাবে অপরিষ্কার নয়। মোটের ওপর পিরিয়ডের সময় মহিলাদের প্রায় তিরিশ থেকে চল্লিশ মিলিলিটার রক্তক্ষরণের সম্মুখীন হতে হয়। আর সেই রক্তক্ষরণ ঘটে মাসের তিন থেকে পাঁচ দিন ধরে।

৬। সেক্সের সময় বাড়তি লুব্রিকেশন ব্যবহার করতে হয়? তাহলে অন্তত পিরিয়ড সেক্সের সময় সেই বাড়তি লুব্রিকেটিং এলিমেন্ট না ব্যবহার করলেও আপনার চলবে। কারণ এই সময় আপনার যৌনাঙ্গ যথেষ্ট লুব্রিকেটেড থাকে যে'টা যৌনমিলনে সাহায্য করে।

৭। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে যে পিরিয়ডের সময় মহিলারা বাড়তি যৌন উত্তেজনা অনুভব করেন আর তাঁদের যৌন আকাঙ্ক্ষাও বেড়ে যায়। অর্থাৎ এই সময় আপনি যৌনমিলন বেশি মাত্রায় এবং বেশিক্ষণ ধরে উপভোগ করবেন। শুধু তাই নয়, এ'তে আপনার সঙ্গীর জন্যও সেক্স বেশি উপভোগ্য হয়ে উঠবে।

৮। কেউ খোলাখুলি আলোচনা না করলেও, এ'টা পছন্দ প্রায় সকলেই করেন। যে কোনও মহিলাকে জিজ্ঞেস করলেই তাঁরা নিশ্চিন্তে জানাবেন যে পিরিয়ডের সময় যৌনমিলন তাঁদের জন্য কতটা উপভোগ্য হয়ে উঠতে পারে। রক্তক্ষরণের জন্য ব্যাপারটা একটু অপরিষ্কার হতে পারে কিন্তু সেক্সের পরে সে'টা পরিষ্কার করে নেওয়া আদৌ কোনও কঠিন ব্যাপার নয়।

৯। এই সময় আপনার খিদে বাড়বে। আর যে কোনও কিছু খাওয়ার বদলে নিজের পার্টনারের গায়ে কিছু ছড়িয়ে মিলনের দুর্বার আনন্দ উপভোগ করুন। বিছানায় হয়ে উঠুন আরও অ্যাডভেঞ্চারাস।

১০। আর সব শেষে যে'টা বলা দরকার; পিরিয়ডের সময় সেক্স আপনাকে আপনার পার্টনারের আরও কাছে নিয়ে আসে। কারণ এর ফলে আপনার পার্টনার আপনার দেহ এবং মনকে আরও নিবিড় ভাবে চিনতে শেখেন। এমন কী এর ফলে আপনার মুড সুইংগুলোও তাঁর কাছে আরও স্পষ্ট হয়ে উঠবে।

ফিচার ইমেজের সূত্র: newhealthadvisor.com

loader