দূর্গা পূজোয় করুন ত্বকচর্চা সম্পূর্ণ ঘরোয়া পদ্ধতিতে

পূজো আসতে আর মাত্র ১৬ দিন. কিন্তু আপনি কি তৈরী এবার পূজোতে তিলোত্তমা হয়ে উঠতে? অফিসের চাপ, বাচ্চার বায়না, কাছের মানুষগুলোর জন্যে শপিং করার পাশাপাশি নিজেকেও পূজোর জন্যে তৈরী করতে হবে. পার্লারে ফেসিয়াল তো করবেন কিন্তু বাড়িতে কি করলে আপনার ত্বক হয়ে উঠবে আরো সুন্দর? রইলো বাড়িতেই ত্বকচর্চার কিছু সহজ টিপস |

 শুষ্ক ত্বক

শুষ্ক ত্বকের অনেক কারণ হতে পারে | শুকনো, ফাটা ত্বক কারুরই ভালো লাগেনা | যতই ভালো লোশন লাগান, শুস্ক ত্বকের দরকার অনেক বেশি পরিচর্যা | কিন্তু যতই বাইরে থেকে যত্ন নিন, শুকনো ত্বকের সবথেকে বেশি দরকার ভেতর থেকে পরিচর্যা | দিনে অন্তত চার থেকে পাঁচ লিটার জল খান | যদি জল খাবার কথা মনে না থাকে, অনেক রকম মোবাইল এপ্লিকেশন আছে যা আপনাকে এক নির্দিষ্ট সময় পর পর জল খাবার কথা মনে করিয়ে দেবে. 

এর পাশাপাশি, স্নানের সময় খুব গরম জল ব্যবহার করবেন না. গরম জলে ত্বক আরো শুকিয়ে যায় | ঈষদুষ্ণ জলে স্নান করুন | স্নানের পর গায়ে মেখে নিন আফটার-বাথ বডি লোশন | স্নানের আগেও সারা গায়ে অলিভ অয়েল বা নারকোল তেল মাখতে পারেন | সপ্তাহে একবার কোনো ভালো স্ক্রাব দিয়ে সারা শরীর ঘষে নিন. বাড়িতেই বানিয়ে নিতে পারেন স্ক্রাব. 

– আমন্ড তেলের সাথে একটু চিনি মিশিয়ে সারা গায়ে ভালো করে সারা গায়ে ঘষে নিন | তারপর ধুয়ে ফেলুন |

– পাতিলেবুর রসে চিনি আর একটু অলিভ অয়েল বা আমন্ড অয়েল মিশিয়ে সারা শরীরে চক্রাকারে লাগান | ভিজে শরীরে লাগাবেন | যতক্ষণ না চিলি গলে যাচ্ছে ততক্ষণ মাসাজ করুন | ধুয়ে ফেলে ময়শ্চারাইজ়ার লাগিয়ে নিন |

এ ছাড়াও আপনার রান্নাঘরের সামগ্রী দিয়ে করে ফেলতে পারেন ত্বকের যত্ন | একটু সময় নিজের জন্যে বার করে বানিয়ে ফেলুন ফেস প্যাক |

– একটা ডিমের কুসুম আলাদা করে নিন. এতে মেশান এক বড় চামচ অলিভ অয়েল, এক বড় চামচ কমলালেবুর রস, কয়েক ফোঁটা গোলাপ জল ও একটু পাতিলেবুর রস | এটা মুখে রাখুন ১০ – ১৫ মিনিট | ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলে আপনার রোজকার ময়শ্চারাইজ়ার লাগিয়ে নিন | 

– যদি ডিমের কুসুম মুখে লাগাতে না ইচ্ছে করে, একটা পাকা কলা ম্যাশ করে নিন | এতে মেশান এক বড় চামচ নারকেল তেল | কুড়ি মিনিট মুখে লাগিয়ে রেখে ধুয়ে ফেলুন | সপ্তাহে দুবার করলেই শুষ্কতা থেকে মুক্তি পাবেন | 

তৈলাক্ত ত্বক 

রাত্রে সবার আগে মুখ পরিষ্কার করা সবরকম ত্বকের জন্যেই জরুরি কিন্তু যাদের তৈলাক্ত ত্বক তাদের জন্যে এটি অপরিহার্য | রোজ যদি খুব যত্নের সময় না পান, তৈলাক্ত ত্বকের জন্যে তৈরী যে কোনো ফেসওয়াশ বা ক্লেনসিং মিল্ক দিয়ে মুখ ধুতে পারেন | অথবা ক্লেনজার বানিয়ে নিন বাড়িতেই | 

– সবথেকে সহজ মুখ পরিষ্কার করার উপায় হল অলিভ অয়েল লাগানো | ভালো করে চক্রাকারে সারা মুখে অলিভ অয়েল মেখে নিন. মাসাজ করে উষ্ণ গরম জলে ভেজানো তোয়ালে দিয়ে হালকা হাতে মুছে নিন | তৈলাক্ত ত্বকে তেল লাগাতে অদ্ভুত লাগতে পারে, কিন্তু মনে রাখুন, অলিভ অয়েল কোষের ভেতরের ময়লা টেনে বার করে মুখের pH ব্যালান্স ঠিক করতে সাহায্য করে | এবং এতে মুখ আরও বেশি তৈলাক্ত হয়ে উঠবেনা | 

তৈলাক্ত ত্বকের ক্ষেত্রে মুখের পাশাপাশি শরীরের যত্নও খুব জরুরি | রান্নাঘরের কিছু উপকরণ দিয়ে বানিয়ে নিন মুখ ও শরীরের জন্য স্ক্রাব | 

– দুই চামচ মুসুর ডাল গুঁড়ো করে এতে এক চামচ দই ও এক চিমটি হলুদ মিশিয়ে নিন | সারা গায়ে ও মুখে ভালো করে ঘষে নিয়ে ঈষদুষ্ণ গরম জলে ধুয়ে ফেলুন | সপ্তাহে একবার করলেই যথেষ্ট | 

– অর্ধেক শশা গ্রেট করে মুখে লাগিয়ে নিন | ৩ থেকে ৫ মিনিট ঘষে নিয়ে ধুয়ে ফেলুন |

তৈলাক্ত ত্বকের একটি বড় অসুবিধা হল ব্রণ | যতই সবাই বলুক যে ব্রণ কখনো চেপে ফাটাতে নেই, আমাদের মধ্যে খুব কম মহিলা সেটা মানেন | যদি একান্তই করতে হয়, তাহলে ভালো কোয়ালিটির কমেডন এক্সট্রাক্টর ব্যবহার করুন | কিন্তু শুধুমাত্র তখন যখন ব্রণতে মুখ হয়েছে | রাতারাতি ব্রণ থেকে মুক্তি পেতেও রান্নাঘরের জিনিস ব্যবহার করা যায় | 

– একটা রসুনের কোয়া কেটে ব্রণর মুখে রসটা ঘষে নিন | 

– ব্রণ পুরোপুরি পরিণত হবার আগে ভিক্স ভেপোরাব লাগাতে পারেন | এতে অপরিণত ব্রণ টেনে যায় |

– ব্রণতে লেবুর রসও লাগাতে পারেন |

– ব্রণর দাগ দূর করতে সারা মুখে ভালো করে মধু ও লেবুর রস মিশিয়ে লাগিয়ে নিন | কিছুক্ষন রেখে ধুয়ে ফেলুন | 

– নিয়মিত আলুর রস লাগলেও ব্রণর দাগ নিরাময় হয় | 

বাড়িতেই তৈলাক্ত ত্বকের জন্যে ময়শ্চারাইজ়ারও বানিয়ে নেওয়া যায় | 

– এক চামচ মধু, ২ চামচ গ্লিসারিন, ২ চামচ গ্রীন টি ও ১ চামচ লেবুর রস মিশিয়ে ভালো করে মুখে মাসাজ করুন | এতে ত্বকের pH লেভেল ভালো থাকবে | মধু আর গ্লিসারিন ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখে, এবং মধু ও গ্রীন টি ত্বকের সমানতা ধরে রাখে | 

মিশ্র ত্বক

মিশ্র ত্বকের মানে হল শুধু কপাল ও নাকের পাশটুকু তৈলাক্ত থাকে কিন্তু বাকি মুখ শুষ্ক হয় | এরম ত্বকের পরিচর্যা করতেও আপনার রান্নাঘরের জিনিসের অভাব নেই |

– অল্প ব্রাউন সুগার ও এলোভেরার রস বা অল্প সূর্যমুখী তেল মিশিয়ে সপ্তাহে দুবার মুখ ও শরীরে ঘষে নিন | মিনিট দুয়েক ঘষে নিয়ে ধুয়ে ফেলুন |

– মিশ্র ত্বকের ক্ষেত্রে মুখ পরিষ্কার করতে মধু ও পাতিলেবু মিশিয়ে লাগান | শুকোতে লাগলে ধুয়ে ফেলুন |

– মিশ্র ত্বকে যেকোনো রকমের ফলও খুব উপকার দেয় | কলা, পেঁপে বা অন্য যে কোনো রকম ফল ম্যাশ করে মুখে লাগিয়ে নিন | মিনিট পনেরো কুড়ি রেখে ধুয়ে ফেলুন | 

বাড়িতেই বানিয়ে নিন মিশ্র ত্বকের জন্যে দুর্দান্ত ময়শ্চারাইজ়ার | 

– ১ চামচ গ্রীন টি, ১ চামচ গ্লিসারিন ও ভিটামিন ই তেল মিশিয়ে নিন | ভালো করে মুখ ধুয়ে নিয়ে এটি হালকা করে মুখে লাগিয়ে নিন | 

হাত ও পায়ের যত্ন 

এর পাশাপাশি খেয়াল রাখুন আপনার হাত ও পায়ের | সর্বাঙ্গ সুন্দর কিন্তু হাত পায়ের নখ অসমান, গোড়ালি ফাটা থাকলে কিন্তু পুরো সাজটাই নষ্ট | বাড়িতে করে নিন ম্যানিকিওর ও পেডিকিওর |

– বাড়িতে ম্যানিকিওর ও পেডিকিওরের স্ক্রাব বানাতে হলে একটা বাটিতে বেসন, অল্প দই, হলুদ ও অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন | ঈষদুষ্ণ গরম জলে হাত ও পা ভিজিয়ে রেখে এই স্ক্রাবটি লাগিয়ে নিন | শুকিয়ে গেলে একটা ছোট তোয়ালে হালকা গরম জলে ভিজিয়ে ঘষে স্ক্রাব তুলে ফেলুন | হাত ও পা আরো কিছুক্ষন দুধ ও জলের মিশ্রনে ভিজিয়ে রেখে শুকিয়ে নিন | এরপর নেলপলিশ লাগিয়ে নিন ও হাতে ও পায়ে ভিটামিন ই তেল মেখে নিন | 

আজকাল বাজারে অনেক রকম ফাইল ও ব্রাশ পাওয়া যায় যা দিয়ে হাত ও পায়ের মরা কোষ তুলে ফেলতে পারেন | যদি তা ব্যবহার না করেন. আগে বলা লেবুর রস ও চিনির মিশ্রণ লাগিয়ে চিনি গলে যাওয়া পর্যন্ত ঘষলেও একই ফল পাবেন | 

– ফাটা গোড়ালির জন্যে উষ্ণ গরম জলে একটু নুন ও লেবুর রস মিশিয়ে এতে পা ভিজিয়ে রাখুন কুড়ি মিনিট | এরপর ছোবড়া বা পামিস স্টোন দিয়ে ভালো করে গোড়ালি ঘষে নিন | শুকিয়ে নিয়ে সমপরিমানে গ্লিসারিন, গোলাপ জল ও লেবুর রস মিশিয়ে পায়ে লাগান | এর ওপর একটা হালকা সুতির মোজা পরে রাত্রে শুয়ে পড়ুন | সকালে উঠে ধুয়ে ফেলুন | নিয়মিত করলে মুক্তি পাবেন কুৎসিত ফাটা গোড়ালি থেকে |

আপনি কিভাবে করেন বাড়িতে ত্বকের পরিচর্যা? বলুন আমাদের – কে বলতে পারে আপনার রুটিন মেনে অন্য একজন নারীও হয়ে উঠবেন এই পুজোর সেরা সুন্দরী?

Feature Image Source: thedailystar.net

loader